Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  শিল্প সংস্কৃতি  ||  ৯ম বর্ষ ৩য় সংখ্যা আষাঢ় ১৪১৬ •  9th  year  3rd  issue  Jun-Jul  2009 পুরনো সংখ্যা
লন্ডনের বৈশাখী মেলা: প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে কি? Download PDF version
 
 
 

শিল্প-সংস্কৃতি

লন্ডনের বৈশাখী মেলা: প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে কি?

 

শামীম আজাদ

 

শত আশা-আকাঙ্খা হতাশা প্রতিকূলতা উদ্বেগ-উৎকন্ঠার আস্তর ভেদ করে অবশেষে সম্পন্ন হল লন্ডনের টাওয়ার হ্যালেট্‌স একাদশতম বৈশাখী মেলা আকাশ ছিলনা মেঘাক্রান্ত, মাঠ ছিলোনা বৃষ্টিস্নাত-কর্দমাক্ত দেশী বৈশাখের খরতাপ ছিলো না বরং ছিলো বসন্তের বাতাস বিদেশে মেলার জন্য এমন  উন্মুক্ত ময়দান যেনো এর চেয়ে উপযুক্ত পরিবেশ আর হতে পারেনা এমন দিনে তাই অনাবাসী বাঙালিদের প্রপাত নেমেছিলো টাওয়ার হ্যালেট্‌স এর বাংলা টাউনে নিকটবর্তী টিউব ষ্টেশন বেথনালগ্রীণ ছিলো বন্ধ অনেকেই লিভারপুল ষ্ট্রিট থেকে বাস ধরে, অথবা রোববার ছিলো বলে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করার পর বাস না পেয়ে তারা  হেঁটে  বৈশাখী মেলায় যোগ দেন

জনসমাগমের দিক থেকে মেলা এখন বিলেত ইউরোপের একটি অন্যতম বড় মেলা হয়ে দাঁড়িয়েছে ধারণা করা যায় প্রতিবছর মেলায় আগত জনসংখ্যার পরিমান বেড়ে প্রায় আশি হাজার পর্যন্ত হয়ে গেছে এতে এক সঙ্গে তিন প্রজন্মের বাঙালি ছাড়াও উল্লেখযোগ্য উপস্থিতি থাকে এদেশের অবাঙালিদেরও সকলেই একটি আনন্দঘন পরিবেশে সারা দিন ঘুরে ঘুরে নির্ভেজাল বাংলাদেশী স্বাদ, গন্ধ, বর্ণ, শ্রুতি ষ্পর্শের অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চান সন্তানের হাতে শিকড়ের চিহ্ন তুলে দিতে চান অনেক বছর না দেখা বন্ধুকে পেয়ে বুকে জড়িয়ে ধরেন এদেশে বসবাসরত বাঙালিদের জন্য মেলা হয়ে উঠেছে অন্যতম সার্বজনীন উৎসব মিলন মেলা এগারো বছরে বেড়ে ওঠা মেলার এমন ব্যাপ্তির পুরোপুরি কৃতিত্ব

প্রতি বছরের মত এবারও বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র বই-লিট অনুষ্ঠান করে তবে এবার নজরুল সেন্টারে করায় বেশিভাগ লোকই সেখানে ঢুকতে না পেরে বিরক্ত হয়ে ফিরে গেছেন সেখানে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক সাহিত্যিক আবদুল মতিন, সাংবাদিক আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী, সালেহা চৌধুরী, বাংলাদেশের সাবেক ব্রিটিশ হাই কমিশনার আনোয়ার চৌধূরী, বিলেতে বাংলাদেশের এ্যাকটিং রাষ্ট্রদূত এম আল্লামা সিদ্দিকী, শাহীন ওয়েস্টকম্ব, উদয় শংকর দাশ, বাংলাদেশের সাংসদ মঈনুদ্দিন খান বাদল, কবি অনুবাদক ক্রিস্টিন ভিটি, কবি স্টিভেন ওয়াট্‌স-সহ আরো অনেক সাহিত্য-প্রেমি সেখানে কেন্দ্রের আলেখ্য ঋতু রঙে প্রেম, বারী বাবু, গোপাল দাশ, সুহেল সোমা বারীর গান এবং অস্তিত্বের পরিবেশনায় যাত্রা খন্ডাংশ সবাইকে মুগ্ধ করে

বৈশাখী মেলা পরিচালনা নিয়ে নানান কোন্দল, দলাদলী এবং পরিচালনা কমিটিগুলোর প্রতি বিভিন্ন ও নানান অভিযোগের প্রেক্ষিতে এবার মেলা পরিচালনার দায়িত্ব নিয়েছিল কাউন্সিলআর এ দায়িত্ব কাউন্সিল না নিলে এবার মেলা হাতাহাতি ও পুলিশের হস্তক্ষেপ ছাড়া আদৌ আয়োজিত হতে পারতো কিনা তা নিয়ে জনগন সন্দিগ্ধ ছিলেনবাংলা সংবাদ পত্র ও স্থানীয় সবগুলো প্রচার মাধ্যমকে পুরো ব্যবহার করেনি বলেই হয়তোবা জন সমাগম বাড়ার বদলে একটু কমই হয়েছে বলে অনেকে ধারনা পোষন করেনঅনুযোগ ছিলো মেলার প্রতিপাদ্য ও স্থানীয় শিল্পীদের সম-অধিকার পাওয়ার ব্যাপারে

মূল মঞ্চে বাংলার বদলে হিন্দি পরিবেশনা এবং রালিতে বাংলাদেশের মঙ্গল শোভা যাত্রার দশ বছরের থিম ভেঙে তাতে বাংলা কুইনের বিকট পর্দাপনে জনগন বেশ বিরক্ত হয়েছেন কাউন্সিল এ মেলা পরিচালনার দায়িত্ব নিলেই তা যে ভুল ত্রুটি হবে না সে কথা কেউ ভাবেনও না বা প্রত্যাশাও করেন নাকিন্তু এটা যে বাঙালির মেলা তার চিহ্ন হিসেবে মেলা মঞ্চে, লিফলেটে, ব্রশিওরে তো অন্তত একবার বৈশাখী মেলা কথাটি বাংলায় লেখা থাকতে পারতো বল্লেন প্রবীণ রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব এবং সাবেক কাউন্সিলার গোলাম মর্তুজাবাংলাদেশ থেকে বেড়াতে আসা মালেকা চৌধুরী বলেন, আমি আমেরিকা ও ইটালিতে দুটো বৈশাখী মেলা দেখেছিতাতে যে বাংলাদেশের গ্রামীন বিষয়গুলো থাকে তাতো আজ প্রায় পেলামই নাঅংশগ্রহনকারী মেয়েদের এভাবে র্স্কাট আর ক্যারাবিয়ান মুকুট না পরিয়ে বাংলাদেশের চির পরিচিত সাদা লাল শাড়ি পরানো কি যেতো না?

মেলার অন্যতম স্টেইক হোল্ডার চ্যানেল এস এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মাহী জলিল অনুষ্ঠান সমপ্রচার কালে একাধিকবার বিদ্যুত বিচ্ছিন্নতা ও হিন্দি গানের সুর বাজানোর সময় অগনিত বাঙালি দর্শকের চাহিদার কথা ভেবে বেশ বিপন্ন বোধ করেনআর বাধ্য হয়ে পূর্ব পরিকল্পনা পাল্টে মঞ্চ থেকে ক্যামেরা সরিয়ে মেলা মাঠের র্দশকদের কথা সরাসরি প্রচার করেনকিন্তু সেখানেও দর্শকগণ খুব একটা ইতিবাচক কিছু বলেন নাওল্ডহাম থেকে আসা ব্যবসায়ী মমিন মিঞা মূল মঞ্চের ইংরেজি ভাষার উপস্থাপকের বাংলাদেশ নিয়ে জ্ঞানের অপ্রতুলতায় ক্ষোভ প্রকাশ করেনবাঙালি শিল্পীদের নামোচ্চারণ এবং তাদের সম্পর্কে তথ্য শুনে শিল্পীরাও বিব্রত বোধ করেন

কবি ও সংস্কৃতিকর্মী ইকবাল হোসেন বুলবুল তার বারো বছরের পুত্র আদিলের দিকে দৃষ্টি আর্কষন করে বলেন, বাসায় হিন্দি চ্যানেল দেখতে দিইনাএখানে এনেছিলাম বাংলাদেশের মূল সংস্কৃতি দেখাবো বলেআর তার বদলে শুনুন ঐ মূল মঞ্চ থেকে জনপ্রিয় হিন্দি গানের সুর বাজছেএখন ওকে কি বলবো ভাবছি  বৈশাখী মেলার আদি-লগ্ন থেকে যে কজন যুক্ত ছিলেন কোরিওগ্রাফার চায়না চৌধুরী তার অন্যতমতিনি তার দল তাল তরঙ্গ-এর পারর্ফমেন্স শেষে স্টেজ থেকে নেমে এসে বল্লেন, ব্যাক স্টেজে কখন কে কি বলবে বা বলবেনা তার কোনো ঠিক নেইভীষণ এলোমেলো!

মূল মঞ্চের পাশে কাঁচ দিয়ে ঘেরা একটি কক্ষের ভেতরে মেলা পরিচালনাকারী এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আপ্যায়নের ব্যবস্থাদি ছিলো খুব সুন্দরসেখানে কেবল মাত্র নিমন্ত্রিত অতিথিরাই প্রবেশ করতে পারেনজনৈক ভিআইপি তার বান্ধবীদের অপেক্ষা করতে বলে ভেতরে প্রবেশ করলে সুরম্য সে কক্ষ নিয়ে মজাদার মন্তব্য করেন বাইরে তারই বন্ধু বান্ধব নিয়ে অপেক্ষারত শাফিনা খানম, ভাই এ তো দেখি আরেকটি মার্লব্যরী প্যালেসমেলার দিনে সাধারনের সঙ্গে এ রকম বিভাজনের কোনো মানে হয়? ওটা ওপেন হলে আমরা বরং তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করতে পারতামমেলার ভালো মন্দ নিয়ে কথা বলতে পারতাম নজরুল সেন্টারে স্থান সংকুলান হয়না সাহিত্য প্রেমী কবি সাহিত্যিক এবং সাধারণ মানুষদেরতারা অনেক্ষণ অপেক্ষা করে ফিরে যান

সব শেষে এই বলা যায়- কাউন্সিল এই প্রথমবারের মত মেলা পরিচালনা করতে গিয়ে ব্যবস্থাপনায় যে দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে তার জন্য অবশ্যই ধন্যবাদের দাবীদারকাউন্সিল এবারের অভিজ্ঞতার একটা জরিপ নিশ্চয় করেছে এবং তা থেকে আগামী বার আরো ভালো করবেআশা করা যায় আগামীতে মেলার অন্তর-বিষয়াদি নিয়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ববর্গকে নিয়ে বসবেনআর তা হলেই ভবিষ্যতে আমরা একটি সর্বাঙ্গিন সুন্দর মেলা পাবোসে মেলা বাংলাদেশী সহ ভিন্ন ভাষী জনগনের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবেআমরা আগামী বছরের অপেক্ষায় থাকলাম

shetuli @yahoo.com

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.