Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  সাহিত্য  ||  ৯ম বর্ষ ৩য় সংখ্যা আষাঢ় ১৪১৬ •  9th  year  3rd  issue  Jun-Jul  2009 পুরনো সংখ্যা
বলিব আজ অরম্যকথা Download PDF version
 

সাহিত্য

 

রম্যরচনা

বলিব আজ অরম্যকথা

রণজিৎ বিশ্বাস

: মাথায় কেন হাত আপনার? মাথায় হাত রেখে কেন বসে আছেন আপনি?

: মানুষ কখন মাথায় হাত রেখে বসে?

: যখন সে চিন্তায় থাকে যখন সে ভাবনায় পড়েগভীর ভাবনাগভীর চিন্তাকর্তব্য নিয়ে ভাবনাভবিষ্যত নিয়ে ভাবনা

: আপনার মাথায় তেমন কী ভাবনাআপনি তো খেয়েদেয়ে গায়ে ফুঁ দিয়ে ও মেদভুড়ি বাড়িয়ে বেড়ান! আপনার তো কোন ভালোমন্দের জ্ঞান নেই, সময়ের কাজ সময়ে সেরে রাখার আগ্রহ নেই, কোন বিষয় আপনাকেও পীড়িত করে, আমার তো ভাবতেই তকলিফ হয়!

: সে আপনার ব্যাপারআমার যে বিষয় পীড়া, সেটি আবার আমার বিষয়আপনার মনের ধারেকাছে তার হয়তো অস্তিত্বই নেইআপনি হয়তো সেটি ভাবনার বিষয়ই মনে করেন না

: আমি আজ বুঝতে চাই, সবসময় যে গালগোদা কিংবা গোদাগাল হয়ে বসে থাকেন তার পেছনে আপনার যুক্তির জোরটা কেমন

: আমার মন খারাপ আজ তিনটি কারণেএকটি হচ্ছে ডিউটি, একটি বিলিফ, আর তৃতীয়টি হচ্ছে ভাষাআমাদের ভাষা, মূলত আমাদের ব্যবহারিক ভাষাপ্রতিদিনের ব্যবহারে আমাদের বাংলা ভাষা

কিছু কিছু বিষয় আমি নিজের গায়ের ওপর দোষ টেনে বলবোতাতে অনেক সুবিধানইলে লোকজন মাইন্ড করেবলে, আমার একেবারে মূলভাষাতেই বলি, পরিচিত অথবা এমনিতে পরিচিত- পরিচিত মনে হয় কিন্তু আমার ভেতরটা জানে না, আমার পিঠের পরে কথার চাবুক শপাংশপাং মেরে বলে- সে যে অত কথা বলে, তার ভেতরেই তো গলদের শেষ নেই

: এই কথাটি তারা সত্য বলেযারা আপনার এই দোষটি ধরে, তারা কিন্তু চমৎকার কাজ করে

: মানিআমার বেলায় হয়তো একটু বেশি সত্য, তবে অনেকের বেলাতেই এই কথাটি সত্য যে আমরা চালুনি আর সুঁই-এর পার্থক্য বুঝি নাআপনি ভাবেন কিনা জানি না, আমি তেমন করে কখনও ভাবি না- আমি যদি ওর জায়গায় হতাম, আমি কেমন করতাম!

: যা হোক আপনি এবার ডিউটি, বিলিফ ও ল্যাঙ্গুয়েজ-এর কথা বলুন

: ডিউটির ব্যাপারটা হচ্ছে- মনে করুন, আপনি আমাকে পবিত্র একটা দায়িত্ব দিলেন, আমার কোন কথার ওপর অনেক মানুষের ভবিষ্যত, স্বপ্ন , প্রাপ্তি, হক এবং আপনাকে নিয়ে আমাকে নিয়ে, ও আমাদের সবার আত্মীয়স্বজন গুরুশিক্ষক ও বন্ধুবান্ধব নিয়ে যে সমাজ- তার ভয়াবহ এক ক্ষতি হয়ে গেলো; তখন আমি যদি বিপদে পড়ি, আমার হাতে যদি কড়া পড়ে, আমি তো আপনার কোন সহানুভূতি পাবো নাআমার দ্বারা যাদের, যে দেশের ও যে সমাজের মানুষের ক্ষতি হয়েছে, আমি যাদের অপমান কিংবা দুর্যোগ-দুর্ভোগের জন্য দায়ী হয়েছি তারা এবং তাদের বংশধররা তো কোনোদিন ক্ষমা করবে নাআমাকে যখন আটক অবস্থায় ন্যায়ালয়ে নেয়ার বাহনে তোলা হবে, আপনি তো তখন হাসবেন

ভালো মানুষ অন্যের দুর্দশায় হাসে না, অন্যের দুর্ভোগ উপভোগ করে নাআপনিও হয়তো হাসলেন না, সে আপনার বদান্যতা ও রুচির ব্যাপার; কিন্তু বুকের ভেতর গভীর ক্ষত ও যন্ত্রণা নিয়ে এটুকুতো আপনি ভাবতেই পারেন- ঐ লোকগুলোর দ্বারা আমাদের খুব ক্ষতি হয়েছে; ব্যক্তির ক্ষতি, সংগঠনের ক্ষতি ও জাতীয় ক্ষতিদোষ যদি ওদের প্রমাণিত হয় এবং তারপর যদি ওদের জুটে যায় যথাপ্রাপ্য, জুটুক না! ওদের যারা অনুসারী, ওদের যারা অনুবর্তী, ওদের যারা পোষক পৃষ্ঠপোষক এবং যাদের ওরা আজ্ঞাবহ, তারা সামান্য হলেও তো ভাববে- এ সংসারে সবকিছু সবসময় আন-চ্যালেঞ্জড যায় নাচিরদিন তো যেতেই পারে না

তারপর ধরুন, আপনি আমার হাতে কিছু ফান্ড রাখলেনপাবলিকের টাকা-পয়সার ফান্ডআমি আপনার কাছে, পাবলিকের কাছে ও সমাজের কাছে ভালো কাজ সৎভাবে করার ওয়াদা করেও সে টাকা ভেঙে ফেললাম, তছরুফ করলামআমার স্থান ও অবস্থানের পবিত্রতা, শুচিতা ও নিরপেক্ষতার কথা আমি ভুলে গেলাম এবং আমার কাছে যা কিছু গচ্ছিত ছিল তা নিজের মত করে উজাড় করে দিলামএখন আপনি আমাকে কোথায় ফেলবেন, কোথায় ঠেলবেন, কী নামে আমাকে ডাকবেন, আমার জন্য কী আপনি কামনা করবেন, তা আপনার বিবেচনার জন্য থাক

: এবার বলুন বিলিফ-এর কথা

: বিলিফ যদি বলেন বিশ্বাস, বিশ্বাস এর অন্য নাম যদি দেন ধর্ম, বিশ্বাস নিয়ে আমরা এখন এক খেলা খেলছিএই খেলায় আমরা মানুষের আবেগ নিয়ে বড় চটকানো চটকাছিবিচারের জন্য মনে করুন, আমাকে ন্যায়ালয়ে নিয়ে যাচ্ছে আইনের প্রয়োগকারীরাতখন আমি আমার বুকের কাছে আমার বিশ্বাস অনুযায়ী আমার পবিত্র গ্রন্থের এক কপি বুকের কাছে চেপে রাখলামমানুষ আমার ব্যাপারে সহানুভূতিতে ভিজে উঠলোআমি আমার বিশ্বাসকে, আমার পবিত্র পুস্তককে আমার স্বার্থে ব্যবহার করলামকাজটা করলাম, আমি বলবো না; আপনার বিচারের জন্য রেখে দিলামআমার মহাগ্রন্থ আমার সঙ্গে আমি রাখতেই পারি, কিন্তু মানুষকে দেখিয়ে দেখিয়ে রাখতে হবে কেন!

: বাকি রইল ভাষা

: হ্যাঁ, বাকি রইল ভাষাকিন্তু, এই বিষয়টি আমি আয়তনে বড় করে রেখেছিআজ শুধু শুরু করবোনিজের ভাষাটিকে আমরা বড় হেলা-অবহেলায় আর অযত্নে ব্যবহার করছিএর কোন রকম প্রাপ্তিই ব্যবহারের বেলায় আমাদের মনে কোনো শ্রান্তি আনছে নাটেলিভিশন দেখার সুযোগ আমি বড় বেশি পাই নাযেদিন বসি সেদিনই বিপদে পড়িসর্বশেষ বিপদ হচ্ছে, এক অনুষ্ঠানের উপস্থাপিকা, সৌন্দর্য ও রূপময়তায় টেনে রাখার মত এক বিশেষ বয়সী বালিকা বললেন- এবার আমি কথা বলবো এ বাড়ির জ্যৈষ্ঠসন্তানের সঙ্গেজ্যৈষ্ঠ আর জ্যেষ্ঠর পার্থক্য তাকে যে কোনোদিন ধরিয়ে দেয়নি, বুঝতে পারছিলামবুঝতে পারছিলাম বলেই আশা করছিলাম, বালিকা এবার বলবে- এবার কথা বলবো আষাঢ়-সন্তানের সঙ্গে, এবার ভাদ্রকন্যার সঙ্গেকিন্তু সে আবার বললো, এবার কথা বলছি- বাড়ির জৈষ্ঠ কন্যার সঙ্গেভাবলাম এমন বলার কারণ কী হতে পারে! উত্তর মিললো মনের ভেতর থেকে- কারণ একটিই হতে পারে, ঐ বাড়ির ঐ কন্যাটি মধুমাস জ্যৈষ্ঠেই জন্ম নিয়েছিলতাছাড়া এখন মাসও তো চলছে জ্যৈষ্ঠ; তিনি বোধহয় মাসের নামের পাল্লায় পড়ে গিয়েছিলেন

লেখক শ্রমজীবী কথাসাহিত্যিক

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.