Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  মূল রচনাবলীঃ  ||  ৯ম বর্ষ ৩য় সংখ্যা আষাঢ় ১৪১৬ •  9th  year  3rd  issue  Jun-Jul  2009 পুরনো সংখ্যা
অতিথি সম্পাদকদের কথা Download PDF version
 

বঙ্গ সম্মেলন ও ফোবানা সম্মেলন

অতিথি সম্পাদকদের কথা

আশফাক স্বপন ও সালেহীন মনোয়ার রেশাদ

মার্কিন মুলুকে বাঙালি সমাজের আয়তন বৃদ্ধির সাথে সাথে বাঙালিদের অনুষ্ঠানের কলেবর আর সংখ্যাও বেড়েছে। এর মধ্যে FOBANA আর NABC বা বঙ্গ সম্মেলনেরই নামডাক সব চেয়ে বেশি। প্রথমটিতে বাংলাদেশীরা যান, দ্বিতীয়টিতে পশ্চিম বঙ্গের বাঙালিরা। এদেশে দুই বাংলা থেকে আগত অভিবাসীরা যে একে অপরের অনুষ্ঠানে যান না, তা নয়, দুটো সম্মেলনে দুই বাংলা থেকে শিল্পীও আসেন - কিন্তু তারপরও বলতে হয়, এক ধরনের রাজনৈতিক বিভাজন বেশ পরিষ্কারভাবেই সম্মেলন দু্টোতো কাজ করে। সে যাই হোক, দেশ থেকে দশ হাজার মাইল দরে কয়েক হাজার বাঙালি ফি বছর মিলিত হন, এটা শুধু উল্লেখযোগ্য নয়, এদেশে বসবাসরত দুই বাংলার বাঙালির জন্যই শ্লাঘা বিষয়। এই সংখ্যা প্রচ্ছদ কাহিনী তাই দুই বাংলার এই বার্ষিক মিলনযজ্ঞ নিয়ে।

তৃতীয় বিশ্বের যে কোন দেশ থেকে আমেরিকায় মাইগ্রেট করে আমরা বোধহয় মনের অজান্তেই বিভ্রান্ত (confused) হয়ে যাই। একদিকে নিজের সংস্কৃতির প্রতি প্রচণ্ড পিছুটান আর অন্যদিকে আমেরিকার ভাল দিকগুলোর প্রতি আকর্ষ এই দুইয়ের মাঝে পড়ে সবকিছুতেই আমাদের মিশ্র অনুভতি তৈরি হয়। ঠিক এই ব্যাপারটিই লক্ষ্য করলাম পড়শীর পক্ষ থেকে  FOBANA সম্পর্কে দর্শকদের প্রতিক্রিয়া জানতে গিয়ে। দেশে ফেলে আসা দিনের গান শুনতে কিংবা কৈশোরে দেশের যে সমস্ত কবি সাহিত্যিক শিল্পীকে আদর্শ চরিত্র জেনে আমরা বড় হয়েছি তাদের সান্নিধ্য পাওয়ার জন্য ফোবানায় যাবার জন্য সবার মধ্যে প্রচণ্ড উদ্দীপনা বিরাজ করে। অন্যদিকে  FOBANAকে আমেরিকান অনুষ্ঠানগুলোর প্রফেশনালিজম, সময়ানুবর্তিতা ও পেশাদারিত্বের সাথে তুলনা করে অনেকেই হতাশ হন।

এবারের FOBANA হতে চলেছে হিউস্টন এবং ওয়াশিংটন ডি,সি, তে। দুটি FOBANA নিয়েই যথেষ্ট উদ্দীপনা। কারা কারা আসছেন, কি কি হবে ইত্যাদি ইত্যাদি। সবারই প্রশ্ন প্রিয় শিল্পীরা আসবেন কি না, পরিচিত সবাই FOBANA-তে যাবেন কি-না! আর অন্যদিকে প্রবাসের সীমাহীন ব্যস্ততার মধ্যে এতবড় আয়োজন করতে গিয়ে আয়োজকদের প্রাণান্ত পরিশ্রমের কথাটা সহজেই অনুমেয়। পড়শীর এই সংখ্যায় তাদের বক্তব্যও আপনারা জানতে পারবেন। সেইসাথে প্রথম ফোবানার সাধার সম্পাদক য়াহেদ হোসেনীর লেখায় এসেছে প্রথম দিককার অনেক তথ্য। আর অন্যদিকে আমেরিকায় জন্ম গ্রহ করে এখানকার আলো বাতাসে বড় হয়ে উঠা যেই দ্বিতীয় প্রজন্মের মাঝে বাংলা সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের বার্তা পৌঁছে দেবার জন্য প্রথম প্রজন্মের প্রাণান্ত চেষ্টা সেই দ্বিতীয় প্রজন্মের কি অভিজ্ঞতা FOBANA সম্পর্কে তা জানার জন্যে আমাদের অপেক্ষা করতে হবে পড়শীর আগামী সংখ্যা পর্যন্ত।

এবার বঙ্গ সম্মেলন হচ্ছে স্যান হোজে কনভেনশন সেন্টারে আসন্ন ৪ জুলাইয়ের সপ্তাহান্তে বে এরিয়াতে তো বটেই, গোটা উত্তর আমেরিকাতে সংস্কৃতি পিপাসু বাঙালিদের মধ্যে সাজ সাজ রব পড়ে গেছে। এবারের সম্মেলনের আয়োজক বে এরিয়ার বাঙালী সংগঠন প্রবাসী। কি কি মূল আকর্ষণ এই সম্মেলনে? কারাই বা আসছেন? বিস্তারিত লিখেছেন এবারের বঙ্গ সম্মেলনের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সর্বেসর্বা প্রসেনজিৎ বিশ্বাস।

মাত্র ৮০ জন লোকের উপস্থিতিতে একদিনের অনুষ্ঠান নিয়ে ১৯৮১ সালে যেই বঙ্গ সম্মেলনের যাত্রা শুরু এর পোষাকী নাম North American Bengali Conference - সেটা আড়ম্বর আর ব্যাপকতায় চোখ ধাঁধান রূপ ধারণ করেছে। বঙ্গ সম্মেলন শুরু করে নিউ ইয়র্কের বাঙালি সংগঠন বঙ্গীয় সংস্কৃতি সঙ্ঘ বা Cultural Association of BengalCAB-এর প্রতিষ্ঠাতাদের একজন, নিউইয়র্কবাসী প্রবীণ বাঙালি সমাজসেবক ও নিরলস লেখক রণজিৎ কুমার দত্ত প্রথম বঙ্গ সম্মেলন এবং তার বিবর্তন নিয়ে এই সংখ্যায় একটি মূল্যবান প্রামাণ্য প্রবন্ধ লিখেছেন। CAB-এর বর্তমান সভাপতি জহর ভট্টাচার্য্য জানালেন বঙ্গ সম্মেলন করার বুদ্ধিটা প্রথম আসে দীপক হালদারের মাথায়। দীপকবাবু CAB-এর দ্বিতীয় সভাপতি, তিনি নাকি তখন ভাবতেও পারেন নি, সেই বঙ্গ সম্মেলন আজ এত বিরাট আকার ধারণ করবে।

কলেবর বৃদ্ধির সাথে সাথে NABC-এর জৌলুসও বেড়েছে অনেক। এখনতো কলকাতা ঢাকা থেকে অনেক নামী-দামী শিল্পীই বঙ্গ সম্মেলনে আসেন। আমরা এই সংখ্যায় বঙ্গ সম্মেলনকে নানা আঙ্গিকে পর্যালোচনা করেছি। CAB-র বর্তমান সভাপতি জহরদা নিউ ইয়র্কে বঙ্গ সম্মেলনের রজত জয়ন্তী উৎসবের স্মৃতিচারণ করেছেন। বঙ্গ সম্মেলনে তো বটেই, প্রায় যে কোন বড় বাঙালি অনুষ্ঠানে এদেশে বড় হওয়া বাঙালি আমেরিকানদের প্রায়ই না-ঘরকা-না-ঘাটকা অবস্থা হয়। সেজন্য আমরা অনির্বাণ চ্যাটার্জীর দ্বারস্থ হলাম দ্বিতীয় প্রজন্মের ভাষ্য শোনার জন্য। ও আমার অত্যন্ত স্নেহভাজন, অনুজপ্রতিম। ওর লেখায় নতুন প্রজন্মের বাঙালিদের অনেক অজানা কথা জানতে পারবেন।

কোন অনুষ্ঠান বা আয়োজনই সর্বাঙ্গসুন্দর নয় এই সম্মেলনগুলোও তার ব্যতিক্রম নয়। তাছাড়া এদেশে বসবাসরত বাঙালি সমাজের বৃহত্তর সামাজিক সাংস্কৃতিক প্রেক্ষিত নিয়ে কেউ কেউ কিছু কড়া মন্তব্যও করেছেন। প্রবাসে মাতৃভাষা চর্চা ও সংস্কৃতির বিকাশ হল খরস্রোতা নদীতে উজান বাওয়ার মত বড় দুরূহ সে কাজ। সেদিক দিয়ে দেখলে নেতিবাচক মন্তব্যকে গঠনমূলক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ঠাণ্ডা মাথায় বিবেচনা করে তার থেকে শিক্ষা নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।

 

_________________

অতিথি সম্পাদকদের ই-মেইল:

আশফাক স্বপন : aswapan@gmail.com

সালেহীন মনোয়ার রেশাদ : reshad124@yahoo.com 

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.