Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  মূল রচনাবলীঃ  ||  ৯ম বর্ষ ৩য় সংখ্যা আষাঢ় ১৪১৬ •  9th  year  3rd  issue  Jun-Jul  2009 পুরনো সংখ্যা
ফোবানা ২০০৯ সম্মেলন নিয়ে কথোপকথন Download PDF version
 

বঙ্গ সম্মেলন ও ফোবানা সম্মেলন

ফোবানা ২০০৯ সম্মেলন নিয়ে কথোপকথন

ডঃ নুরন্নবী ফোবানা বাংলাদেশ সম্মেলনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের একজন। বর্তমানে তিনি হিউস্টন ফোবানা-এর কেন্দ্রীয় কমিটির একজন উপদেষ্টা। ২০০৯ সালের উত্তর আমেরিকার বিভক্ত ফোবানা সম্মেলনের প্রাক্কালে পড়শীর সাথে তাঁর এ সাক্ষাৎকারটি নিয়েছে সাবির মজুমদার।

পড়শী : ফোবানার শুরুটা কবে এবং কেন?

নুরন্নবী : উত্তর আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন প্রথম অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৮৭ সালে লেবার ডে উইকএন্ডে ওয়াশিংটন ডিসিতে। পরবর্তীতে যা ফোবানা উত্তর আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন বলে পরিচিতি লাভ করে।

প্রধানত তিনটি উদ্দেশ্য নিয়ে ফোবানা সম্মেলন শুরু হয়েছিল – (১)উত্তর আমেরিকায় বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতি পরিচর্যা ও প্রচার, (২) প্রবাসী বাংলাদেশীদের মধ্যে যোগাযোগ ও পরিচিতি বৃদ্ধি করা এবং (৩) উত্তর আমেরিকার মূলধারার জনগোষ্ঠীর সাথে বাংলাদেশীদের যোগাযোগ ও সম্পর্কের উন্নয়ন করা।

পড়শী : ফোবানার সাথে আপনার সম্পর্ক এবং দায়িত্ব কি?

নুরন্নবী : আমি ফোবানা বাংলাদেশ সম্মেলনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্যদের একজন। এ ছাড়াও আমি দুদুবার ফোবানার কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান ছিলাম। বর্তমানে আমি ফোবানা কেন্দ্রীয় কমিটির একজন উপদেষ্টা।

পড়শী : ফোবানার ভাঙ্গন শুরু হয় কবে এবং কেন?

নুরন্নবী : ১৯৯৪ সালে ফোবানার দুটি সম্মেলনের মাধ্যমে ভাঙ্গন ধরে। এটা হয়েছিল মূলত দুজন উচ্চাভিলাসী ব্যক্তির ফোবানা সম্মেলনের আহ্বায়ক হওয়ার সাধ মেটাতে। অবশ্য এর সাথে অন্যান্য কারও ছিল।

পড়শী : এবার ফোবানা কোথায় কোথায় হচ্ছে? আপনি কোনটাতে যাচ্ছেন এবং কেন?

নুরন্নবী : এবার ২৩ম ফোবানা উত্তর আমেরিকা বাংলাদেশ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টেক্সা-এর হিউস্টন শহরে জুলাই ২-৪ তারিখে। আমরা সেখানে যাচ্ছি কার এটাই একমাত্র ফোবানার বাংলাদেশ সম্মেলন এখানে উল্লেখযোগ্য, ফোবানা নামটি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ট্রেডমার্ক ও প্যাটেন্ট বিভাগ থেকে আমাদের নামে নিবন্দ্ধিত হয়েছে। অন্য কেউ ফোবানা নাম ব্যবহার করলে তা আইন-বিরোধী এবং দণ্ডনীয় অপরাধ। বিভিন্ন নামে বাংলাদেশ সম্মেলন হতে পারে। তাতে দোষের কিছু নেই। কিন্তু ফোবানা উত্তর আমেরিকা সম্মেলন একটাই যা এবার হতে যাচ্ছে হিউষ্টনে।

পড়শী : এবারের ফোবানার আকর্ষণগুলো কি কি?

নুরন্নবী : এবার ফোবানার সম্মেলনের প্রধান আকর্ষ হচ্ছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের উপর বিশেষ অনুষ্ঠান। এবারই সর্বপ্রথম ফোবানা সম্মেলনে বীরশ্রেষ্ঠ পরিবারের উপস্থিতিতে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেখানো হবে। এছাড়াও থাকবে দেশ ও প্রবাসের গুণীজন ও শিল্পীদের উপস্থিতি ও নতুন প্রজন্মের অনুষ্ঠান।

পড়শী : ফোবানাকে কি আপনি সফল মনে করেন? পক্ষে বা বিপক্ষে আপনার যুক্তি কি?

নুরন্নবী : আমি ফোবানা সম্মেলনকে সফল মনে করি। আমরা প্রথম সম্মেলনে ৭-৮ সংগঠন ও প্রায় ৬-৭ শত দর্শকের উপস্থিতিতে সম্মেলন শুরু করেছিলাম। এখন সারা উত্তর আমেরিকা থেকে ৫০ এর উর্দ্ধে  সংগঠন এবং প্রায় ৫-৬ হাজার দর্শক উপস্থিত থাকে। এ ছাড়াও বাংলাদেশ থেকে অনেক বুদ্ধিজীব ও শিল্পী অংশগ্রহ করে। আরও থাকে মূলধারার রাজনীতিবিদ ও সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ

পড়শী : ভবিষ্যতে একীভূত ফোবানা হবার কি কোন সম্ভাবনা আছে? থাকলে এর উদ্যোক্তা কারা? না থাকলে নাই কেন?

নুরন্নবী : ফোবানা সম্মেলন একটিই। একত্রীভূত হবার প্রশ্ন উঠেনা। তবে বিভিন্ন নামে বাংলাদেশীদের যে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় তাদের জন্যে ফোবানার দ্বার সবসময় খোলা। তারা সব সময় আমন্ত্রিত। ফোবানা নামে একই সময়ে একাধিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ায় অতীতে কিছুটা বিভ্রান্তি হয়েছিল। কিন্তু গত বৎসর থেকে ফোবানা নামটির ট্রেডমার্ক প্রাপ্তির পর সে বিভ্রান্তির অবসান হয়েছে।

পড়শী : উত্তর আমেরিকার প্রবাসী কম্যুনিটির স্বার্থে পড়শীর মত মিডিয়াগুলো কি করতে পারে?

নুরন্নবী : উত্তর আমেরিকার প্রবাসী কম্যুনিটির স্বার্থে পড়শী ও অন্যান্য মিডিয়ার উচিৎ ফোবানাসহ অন্যসব সম্মেলনে উপস্থিত থেকে সম্মেলন সম্পর্কে তুলনামূলক প্রতিবেদন প্রচার করা। কোথায় কি হচ্ছে তার তুলনামূলক সঠিক প্রতিবেদন ছাপানো। তা হলে ফোবানা সম্পর্কে জনগণের মনে বিভ্রান্তি দূর হবে।

পড়শী : আপনাকে পড়শী’র পক্ষ থেকে অনেক ধন্যবাদ।

 

মে ১৮, ২০০৯

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.