Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  সাম্প্রতিক  ||  ৯ম বর্ষ ৯ম সংখ্যা পৌষ ১৪১৬ •  9th  year  9th  issue  Dec 2009 - Jan 2010  পুরনো সংখ্যা
বঙ্গবন্ধু হত্যার পলাতক খুনীদের কথা Download PDF version
 

সাম্প্রতিক

বঙ্গবন্ধু হত্যার পলাতক খুনীদের কথা

সাইফুল্লাহ মাহমুদ দুলাল

            মহান মুক্তিযুদ্ধের পর অর্জিত স্বাধীনতার মাত্র সাড়ে তিন বছরের মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নির্মমভাবে সপরিবারে হত্যা করা হয়৩৪ বছর পর এ হত্যাকাণ্ডের বিচার হল গত ১৯ নভেম্বরখুব ধীরে ধীরে দীর্ঘ বারো বছরে নিম্ন আদালত থেকে শুরু করে আইনের প্রতিটি ধাপ অতিক্রম করে সর্ব্বোচ্চ আদালতের মাধ্যমে ১২ জন আসামীকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া হয়মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১২ আসামীর মধ্যে কারাবন্দী পাঁচ আসামী হলেন: সৈয়দ ফারুক রহমান, সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, মুহিউদ্দিন আহমেদ (আটিলারি), বজলুল হুদা ও একে এম মহিউদ্দিন আহমেদ (ল্যান্সার)মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত অন্য ছয় আসামী পলাতকতারা হলেন: খন্দকার আবদুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, এ এম রাশেদ চৌধুরী, এস এইচ এম বি নূর চৌধুরী, আবদুল মাজেদ ও মোসলেম উদ্দিনবাকি একজন আজিজ পাশা মারা গেছে জিম্বাবুয়েতারা সবাই সাবেক সেনা কর্মকর্তা১৯৭৬ সালের ৮ জুনে প্রকাশিত এক সরকারি গেজেটের প্রেক্ষিতে তারা বিভিন্ন দূতাবাসে নিয়োগ পেয়েছিল

কানাডায় খুনীদের কথা

            জাতির জনক বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের রায়ের মাধ্যমে জাতি দায়মুক্ত হলোইতিহাসের কলঙ্কিত এ হত্যাকাণ্ডের পলাতক খুনীরা কে কোথায় তার সুনির্দিষ্ট তথ্য জানা যায়নিবিভিন্ন গণমাধ্যম বিভিন্ন দেশের কথা উল্লেখ করেছে এবং খুনিরা খুব সতর্কতার সঙ্গে এক দেশ থেকে অন্য দেশে পালিয়ে বেড়াচ্ছেআর সেই আলোচিত দেশগুলো হচ্ছে: পাকিস্তান, ভারত, লিবিয়া, থাইল্যান্ড, হংকং, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ আফ্রিকা, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা

            উল্লেখ্য, ২০০৭-এ কানাডাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস নূর চৌধুরীকে পাসপোর্ট ইসু করেছিল, পত্র-পত্রিকায় সে খবর প্রকাশ হয়সেই সময় রাষ্ট্রদূত ছিলেন খন্দকার মোশতাকের দ্বিতীয় স্ত্রীর আগের ঘরের পুত্র রফিকুল ইসলাম ওরফে টিপুকাজেই তাদের যোগসূত্র সরল অঙ্কের মতো মিলে যায়

            যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত আরেক খুনি আর্টিলারি একেএম মহিউদ্দিনও কানাডায় ঢোকার প্রাণপণ চেষ্টা করেও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হয়এজন্য কানাডাবাসীদের কিছুটা ভূমিকা আছেমহিউদ্দিনের পরিবার যখন অটোয়ায় প্রেস কনফারেন্স করেছে, তখন বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, পেশাজীবীরা নানাভাবে প্রতিবাদ করেছে, প্রচণ্ড ঠাণ্ডায় রাস্তায় নেমেছেতখন আমি সাপ্তাহিক বাংলা রিপোর্টারের প্রধান সম্পাদক হিসেবে এবং সাপ্তাহিক বাংলা কাগজের এম আর জাহাঙ্গীর এক লিখিত প্রতিবাদ হাতে হাতে তুলে দেই লিবারেল পার্টির প্রধান বব স্টিকেনকেকারণ তাদের দলের এক নেতা যিনি পল মার্টিন সরকারের আইনমন্ত্রী ছিলেন, তিনি ছিলেন মহিউদ্দিনের আইনজীবীদুদিন পরে ই-মেইলে বব স্টিকেন জানান, কানাডার কোনো আইনজীবীই এই মামলা পরিচালনা করবে নাপরে তাকে যুক্তরাষ্ট্র ডেপুট করে বাংলাদেশে ফেরত পাঠায় ২০০৭-এর ১৮ জুন

            এদিকে হাইকোর্ট থেকে খুনের অভিযোগে অব্যাহতিপ্রাপ্ত ৩ সামরিক কর্মকর্তা যথাক্রমে মেজর (অব.) আহমেদ শরাফুল হোসেন, ক্যাপ্টেন (অব.) কিসমত হাশেম এবং ক্যাপ্টেন (অব.) নাজমুল হোসেন কানাডায় আছেশেষোক্ত দুজন মন্ট্রিয়ল ও অটোয়ায় বসবাস করেশোনা গেছে, শরাফুল নামধাম পরিবর্তন করে অন্য প্রদেশে লোকচক্ষুর আড়ালে বসবাস করছেঅবশ্য কিসমত আনসারও জনসম্মুখে আসে নাহাইকোর্টে তারা অব্যহতি পেলেও ইন্টারপোলে তাদের নামে রেড এলার্ট জ্বলছে

            উল্লেখ্য, কানাডা খুনীদের আশ্রয় দেয় নাগত নভেম্বরে ইউনসর থেকে জ্যাকস মুঙ্গওয়ারি নামক ৩৭ বছরের এক রুয়ান্ডার নাগরিককে গ্রেফতার করেছেক্রাইমস এগেইনস্ট হিউম্যানিটি অ্যান্ড ওয়ার ক্রাইমস অ্যাক্ট প্রণয়নের পর দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসেবে জ্যাকসকে গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেয়া হয়জ্যাকস গং ১৯৯৪ সালে কিবাইয়ি সম্প্রদায়ের হাজার দুয়েক এথনিক তুতসিকে হত্যা করে যারা শরণার্থী হয়ে গির্জায় আশ্রয় নিয়েছিলসেই খুনীদের কানাডা সরকার খুঁজে বের করছেআশা করি বঙ্গবন্ধু হত্যার খুনীদের ক্ষেত্রেও একই পদক্ষেপ নেবে

            রাজনৈতিক বিশ্লেষক মনে করেন, উত্তর আমেরিকা থেকে দ্রুত খুনীদের ফিরিয়ে নেয়া দরকারকারণ, ছড়িয়ে থাকা ছয় খুনীর মধ্যে যোগাযোগ রয়েছেতারা দেশে বিদেশে নানামুখী তৎপরতায় লিপ্তবঙ্গবন্ধুর দুই নাতি-নাতনি যথাক্রমে জয় ও পুতুল যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডায় বসবাস করেন, সেজন্য বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ

ডালিমের কাছে কোন দেশের পাসপোর্ট?

            পলাতক খুনী শরিফুল হক ডালিম আত্মগোপন করে থাকলেও সে বিভিন্ন দেশে যাতায়ত করছেবিভিন্ন মিডিয়ায় প্রকাশ ডালিমের যাতায়তের সম্ভাব্য জায়গাগুলো হলো কানাডা, যুক্তরাজ্য, পাকিস্তান, হংকং, সিঙ্গাপুর এবং মধ্যপ্রাচ্য

     বাংলাদেশের বা এশিয়ান কোনো দেশের পাসপোর্ট নিয়ে যখন-তখন যত্রতত্র আসা-যাওয়া করা খুবই কঠিনকারণ, ভিসা সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছেসেই জটিলতার মুখোমুখি হতে হয় না ডালিমকেতাই যে দেশের পাসপোর্টে কোনো ভিসার প্রয়োজন নেই, সেই ধরনের একটি গুরুত্বপূর্ণ পাসপোর্ট সে বহন করছেএখন প্রশ্ন হচ্ছে, ডালিমের হাতে কোন দেশের পাসপোর্ট? সে কোন দেশের নাগরিকত্ব নিয়েছে!

            পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে, কেনিয়া, লিবিয়ায় ডালিমের বিরুদ্ধে মামলাসহ বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ আছেকারণ, সে কখনোই কোথাও কূটনৈতিক আচরণ করেনি৭৫-এর পর চীন এবং পোল্যান্ড তাকে কূটনৈতিক হিসেবে গ্রহণ না করে প্রত্যাখ্যান করেছেতখন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ লন্ডনে গিয়ে তার সঙ্গে বিশেষ বৈঠক করে কেনিয়ায় নিয়োগ দেয়এর আগে ছিল হংকংয়ে ভারপ্রাপ্ত মিশন প্রধান

            অভিজ্ঞমহল মনে করছেন, ডালিমের পাসপোর্টটি সম্ভবত যুক্তরাজ্যেরযদি তাই হয়, তাহলে যুক্তরাজ্য স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে শুরু করে অদ্যাবধি বাংলাদেশের সতীর্থ ঘনিষ্ঠবন্ধুনানা কারণেই যুক্তরাজ্যের কাছে আমাদের প্রত্যাশা অনেক বেশিসেজন্য বিষয়টি তদন্তপূর্বক পদক্ষেপ নেয়ার আবেদন জানানো যেতে পারেঅন্য যেকোনো দেশের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্যকেউ কেউ মনে করেন ডালিমের পাসপোর্টটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অথবা ইউরোপের কোন দেশের হতে পারেহতে পারে জাতিসংঘ মিশনের ট্র্যাবল ডকুমেন্টস

টরন্টোস্থ অনলাইন সাপ্তাহিক বেঙ্গলি টাইমস্ এক অনুসন্ধানী রিপোর্টে জানায়, পাসপোর্ট নিয়ে ডালিম গত ২ নভেম্বর দুই সপ্তাহের জন্য এসেছিল কানাডায়রাজধানী অটোয়ার ৩৩ নিকোলাস স্ট্রিটের নভোটেল হোটেলের ৩৩৪ নম্বর রুমে ছিল একটানা ৮ দিনসেখানে বসেই একজন বাঙালি ইমিগ্রেশন কনসালটেন্টের সঙ্গে দুদফা বৈঠক করেধারণা করা হচ্ছে, ইমিগ্রেশন বিষয়ক আলোচনা হয় তাদের মধ্যেহোটেল রুমে বসেই প্রচুর ফোন কল করে ডালিম, যার বেশিরভাগই পাকিস্তান, হংকং এবং লিবিয়ায়এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চাইলে নভোটেল হোটেলের রুম ডিভিসন ম্যানেজার এলেক্স গ্রিকোরেস্কু বলেন, কাস্টমারের কোনো তথ্য আমরা থার্ড পার্টির কাছে সরবরাহ করতে পারি নাতাই বিস্তারিত কিছু জানাতে পারছি নাসূত্রমতে, ১৩ নভেম্বর সকাল ১০টায় নভোটেল থেকে চেক আউট হয় ডালিমএকইদিন রাতেই আসে টরন্টোসেই রাতে মার্খামের এক আত্মীয়ের বাসায় রাত কাটায়পরের দিন ১৪ নভেম্বর রাত ১২টা ১০ মিনিটে ক্যাথে প্যাসিফিক এয়ারলাইন্সের সিএএক্স-২৭ নম্বর ফ্লাইটে হংকং-এর উদ্দেশে টরন্টো ত্যাগ করেবাংলাদেশ সরকার ইচ্ছা করলে উক্ত এয়্যারলাইন্স-এর সাথে যোগাযোগ করে ডালিমের নাগরিকত্ব নিশ্চিত করতে পারে

নূর চৌধুরীকে নিয়ে ধূম্রজাল

            লে. কর্নেল নূর চৌধুরীকে নিয়ে নানা ধরনের বিতর্কিত বক্তব্য, ভিন্নমত, গুজব তৈরি হচ্ছেবিশেষজ্ঞমহল মনে করেন, নূর চৌধুরীকে যেন কানাডা থেকে ডিপোর্ট করা না হয় সেজন্য একটি মহল বিভিন্ন রকমের অপচেষ্টায় তৎপরতারা বিভ্রান্তিমূলক খবর ছড়িয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি করছে যেন নূর চৌধুরী নতুন কৌশল অবলম্বন করতে পারে

            এদিকে লন্ডনস্থ একটি সংবাদসংস্থা বলেছে, সে এখলাসুর রহমাননাম ধারণ করে ২৬/২৭ বছর ধরে পূর্ব লন্ডনের ডকল্যান্ডের ওয়েস্টফেরিতে ভাতিজির সঙ্গে বসবাস করছে, ব্রিকলেনে হাজিহিসেবে জুমার নামাজ পড়েছে, স্থানীয় মাঠে সামরিক কায়দায় ব্যায়াম করেছে, কাপড়ের দোকানে কর্মরত ছিল ইত্যাদিতাতে মনে হয় নূর চৌধুরী যুক্তরাজ্যে

            আবার যুক্তরাষ্ট্রেও নূর চৌধুরী থাকতে পারে বলে ঢাকার একটি দৈনিকে খবর ছাপা হয়েছেইন্টারপোলের ওয়াশিংটন শাখা নূর চৌধুরীর অনুসন্ধানে ঢাকায় তথ্য চেয়েছেতাতে নাকি ঢাকার কর্মকর্তামনে করছেন, নূর চৌধুরী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেএছাড়াও নূর লিবিয়াতেও থাকতে পারে বলে উক্ত সংবাদসংস্থার রিপোর্টে উল্লেখ আছেএদিকে গত মাসে কানাডা সফর শেষে আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ, অটোয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের হাইকমিশনার বলেছেন, নূর চৌধুরীর পাসপোর্ট বাতিল ও জব্দ করা হয়েছেএর সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে কোনো কোনো মহলঅথচ হাইকমিশনার ইয়াকুব আলী পাল্টা প্রশ্ন করেন, শতকরা কত ভাগ নিশ্চয়তা দিলে আপনারা বিশ্বাস করবেন যে, নূর চৌধুরীর পাসপোর্টটি এখন দূতাবাসের কাছে?

স্টিফেন হারপার বিব্রত

            অটোয়া সিটিজেন পত্রিকা জানায়, নূর চৌধুরীকে কানাডা থেকে বহিষ্কার এবং বাংলাদেশে প্রত্যাবর্তনের দাবি কানাডার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী স্টিফেন হারপারের জন্য বিব্রতকর অবস্থার সৃষ্টি করেছেকানাডায় জন্মগ্রহণকারী খুনি রোনাল্ড স্মিথকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর করা নিয়ে এধরনের একটি মামলায় কানাডা সরকার এ বছর পরাজিত হয়েছিলএ সপ্তাহে সিটিজেনশিপ ও ইমিগ্রেশন বিভাগের একজন মুখপাত্র জানান, ‘ফাঁসির রায় হওয়ার সম্ভাবনা আছে এমন ব্যক্তিকে হস্তান্তর করার আগে কানাডা সরকার ঐ দেশের কাছে নিশ্চয়তা চাইবে যে দোষী সাব্যস্ত হলেও হস্তান্তরিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় দেয়া হবে না বা কার্যকর করা হবে না

            কানাডার অটোয়া সিটিজেন-এ বাংলাদেশ প্রেশারস কানাডা টু রিলিজ এলেজড কিলারশিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়কানাডিয়ান সাংবাদিক রেন্ডি ব্যাজওয়েল ও জর্জ ব্যারিরা জানান যে, ১৯৯৬ সালে নূর চৌধুরী কানাডায় আসেন১৯৯৬ সালে ৫ জুলাই তিনি ভিজিটরস্ট্যাটাস পানতবে অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই তিনি শরণার্থীস্ট্যাটাসের জন্য আবেদন করেনঐ বছরই শেখ হাসিনা বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন এবং খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার অঙ্গীকার করেন

            নূর চৌধুরীর শরণার্থীস্ট্যাটাসের জন্য আবেদনের প্রথম শুনানি হয় ১৯৯৯ সালে২০০২ সালের প্রথম দিকে তার আবেদন নাকচ হয়এরপর ২০০৪, ২০০৫ এবং ২০০৬ সালেও তার আবেদন নাকচ হয়

     বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়, নূর চৌধুরী এবং তার স্ত্রী রাশিদা খানম বর্তমানে বৃহত্তর টরন্টোতেই সতর্কতার সঙ্গে অবস্থান করছে

পলাতকেরা কে কোথায়?

            ছয় পলাতক আসামীর মধ্যে চার জনের অবস্থান প্রায় নিশ্চিততারা হলো কানাডায় নূর চৌধুরী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাশেদ চৌধুরী আর ভারতে দিল্লিস্থ তিহার কারাগারে রয়েছে মাজেদ এবং মুসলেহউদ্দিন  আর দুই জনের একজন ডালিম অস্থির পাখির মত ফেরারি হয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে তার সুবিধামত স্থানেঅপরদিকে মধ্যপ্রাচ্যের কোন এক দেশে ঘাপটি মেরে বসে আছে খন্দকার রশিদ

খুনি আজিজ পাশা কি সত্যিই মৃত?

            পৃথিবীতেই খুনী, যুদ্ধাপরাধী এবং অন্য ক্রিমিনালরা আত্মগোপন করেকেউ কেউ নিজেদের মৃতঘোষণা করে ছদ্মবেশে জীবন-যাপন করে লোকচক্ষুর আড়ালেকেউ কেউ মনে করেন সকল ঝামেলা-যন্ত্রণা-জ্বালা, নিন্দা থেকে মুক্তির প্রত্যাশায় পাশাও একই কৌশল নিয়েছেকারণ তার মৃত্যুর তো কোনো প্রমাণ নেইআর যদি প্রমাণ থেকেও থাকে এর সত্যতা কী? তাই প্রশ্নটা অবান্তর নয়

            গত ২২ নভেম্বর ০৯ দৈনিক আমাদের সময়ে সাবেক সচিব এবং খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার টাস্কফোর্সের প্রধান সমন্বয়ক ওয়ালি উর রহমান জানিয়েছেন, আজিজ পাশার সন্ধানে তিনি হারারে যানজিম্বাবুইয়ের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মুগাবের সঙ্গে দেখা করেনমুগাবে প্রথমে পাশাকে ফিরিয়ে দিতে চাইলেও পরে তা থেকে সরে আসেন!

     তিনি আরো জানিয়েছেন, পলাতক অবস্থায় খুনি পাশা সেদেশেই মারা যায় ২০০১ সালেতার এই মৃত্যু নিয়ে এখন জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছেঅন্য খুনিদের মতো লে. কর্নেল আজিজ পাশাও প্রথম সচিব হিসেবে আর্জেন্টিনায় বাংলাদেশ দূতাবাসে চাকরি পায়একপর্যায়ে ডালিম-ফারুকদের মতো ব্যবসা শুরু করেএর আগে চাকরিবিধি লঙ্ঘনের দায়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চাকরি থেকে বরখাস্ত হয়

            তার এই মৃত্যুছলচাতুরি হতে পারেআর যদি মৃত্যুবরণ করেও থাকে তাহলে আরেক মীর জাফরমৃত খন্দকার মোশতাক এবং খুনি আজিজ পাশার মরণোত্তর বিচার প্রয়োজন ইতিহাসের দৃষ্টান্তস্বরূপ

কানাডায় পলাতক খুনিদের ধরতে সচেতন দূতাবাস

            কানাডায় অবস্থানরত নূর চৌধুরিকে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমদ গত ১৮ নভেম্বর সংক্ষিপ্ত সফরে কানাডা আসেনসফরকালে তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন, দেখা করেন কানাডার এটর্নি জেনারেল এবং আইন ও বিচারমন্ত্রী রব নিকলসনের সঙ্গেতার এ সফর খুনিদের ফিরিয়ে নেয়ার প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপদুদিনের এই সফরকালে তিনি দলের কোনো নেতাকর্মীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেননি

            উল্লেখ্য, ফাঁসির আসামি হলেও আইনি জটিলতার কারণে কানাডা থেকে খুনিদের ফিরিয়ে নেয়ার বিষয়টি সহজ নয়খুনের দায়ের অব্যাহতিপ্রাপ্ত কিসমত ও নাজমুলের আইনজীবী উইলিয়াম কোরবেট বলেছিলেন, কানাডার সঙ্গে ৪২টি দেশের অপরাধ বিনিময় চুক্তি থাকলেও বাংলাদেশের সঙ্গে নেই

            পূর্বেই উল্লেখ করা হয়েছে যে, কানাডা কোনো খুনী বা মানবতাবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকা অথবা যুদ্ধাপরাধীকে আশ্রয় দেয় নাকেউ সত্য গোপন করে কানাডার নাগরিকত্ব লাভ করলেও কখনো প্রকৃত সত্য উদঘাটিত হলে তার নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হয়যেমন, ইউক্রেনের নাগরিক ওয়াসিল বাগুতিন, দ্বিতীয় মহাযুদ্ধে হিটলারের নাৎসির সহায়তাকারী নাগরিকত্ব পাওয়ার ৫০ বছর তার নাগরিকত্ব কেড়ে নিয়ে কানাডা থেকে বের করে দেয়া হয়অনুরূপ অপরাধে ওলন্দাজের এক নাগরিককেও ৪০ বছর পর নাগরিকত্ব বাতিল করে কানাডা থেকে বহিষ্কার করা হয়বঙ্গবন্ধু হত্যার খুনীদের ক্ষেত্রেও কানাডা একই নীতি অবলম্বন করবে বলে আমাদের বিশ্বাস

saifullahdulal@gmail.com

লেখক কানাডা প্রবাসী কবি ও গবেষক এবং টরন্টো থেকে প্রকাশিত অধুনালুপ্ত, সাপ্তাহিক বাংলা রিপোর্টারের প্রধান সম্পাদক

 

মন্তব্য:
erewre   May 27, 2016
Since then other biometric shirts have popped up, including ones that use micro-EMG sensors to measure muscle effort Ralph Lauren Polo , made by a Redwood City-based company called Athos. (Earlier this year I reviewed a pair of Athos pants, as did The Verge's Ben Popper.) OmSignal, the company that partnered with Ralph Lauren for the PoloTech Shirt, sells its connected compression shirts separately — although both the PoloTech shirts and OmSignal's Ralph Lauren Hats own shirts are only available for men. But David Lauren, executive vice president for advertising, marketing, and communications at Ralph Lauren Ralph Lauren Scarves , said in an interview that women's smart shirts are on the way. The company is working on making more casual connected apparel — such a polo shirt that could be worn all day, not just during exercise. And Lauren said a smart suit was not out of the realm of possibilities Ralph Lauren Short Sleeved T-Shirts . (I just cannot even, with this level of Bluetooth-connected Americana.) As you might expect, there's a Ralph Lauren mobile app that syncs data from the PoloTech shirt Ralph Lauren Shoes . It's iOS-only at launch and currently doesn't integrate with other third-party fitness applications. Still, the aim with the app is to offer real-time analysis and workout suggestions based on the biometrics you're showing Ralph Lauren Jackets & Outerwear , which means Ralph Lauren is at least aware of one key problem with connected health and fitness devices: there are many that can track what you do, but not as many that tell you what to do next.
USABangaBandhu   December 29, 2009
Can you deny the following facts: The parliament consisted with Awami League MPs banned the judgment of killers of 1975 massacre. If those member MPs took the right decision based on the premises at that moment, why the current authority is doing another funny judging drama. The next morning of killing, the entire Bangladeshi people got their freedom to breath; their happiness knew-no-bounds. I saw people came to the street, and made processions of joys. On that day 20 taka per sher rice became 4.50 taka. Bangladesh never imported table salt so far in my knowledge in her life. But that salt was 32 taka sher in 1975. I saw many people to die due to starving from famine. My question to all you people, who was responsible for these distresses to the poor people of my beloved Bangladesh. Did the ruler not deserve to be stepped down? If it was not the possible in reality, then was it not justified for some brave officers to take the initiative? For God sake, I think those guys did the right job. They are heroes. Whether you accept the fact or not, but I believe that act was justified.
Mahmoodul Haque Sayed   December 29, 2009
BANGABANDHU HOTTER KHUNIDER KATHA is really an informative message to all of us. It is thought-provoking article. It will of course open the eyes of all involved persons to take realistic action against the murderers of Father of the Nation Bangabandhu Sheik Mujibur Rahman. Former deputy minister of East Pakistan - Akhter Barriester - first declared himself as dead in early 1972. But now long years living in Saudi Arabia. Enjoying good life. So those who declared dead, for them real documents are needed. May Allah give your pens more power to unearth more information about mysterious things.
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.