Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  মূল রচনাবলীঃ  ||  ৯ম বর্ষ ১১তম সংখ্যা ফাল্গুন ১৪১৬ •  9th  year  11th  issue  Feb - Mar  2010 পুরনো সংখ্যা
ঘটনাপঞ্জী : প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা Download PDF version
 

ওবামা ও মার্কিন রাজনীতি

 

ঘটনাপঞ্জী : প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা

সালেহীন মনোয়ার রেশাদ

আমেরিকার ৪৪তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে বারাক ওবামা ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন। স্বভাবত:ই সবার কৌতুহল তার জীবন ও উত্থান নিয়ে। এখানে প্রেসিডেন্ট ওবামার জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা সময়ানুক্রমে সংক্ষেপে তুলে ধরা হলঃ


১৯৫৯

কেনিয়ার মেধাবী ছাত্র বারাক ওবামা, সিনিয়র (প্রেসিডেন্ট ওবামার বাবা) ২৩ বছর বয়সে একটি আমেরিকান প্রোগ্রামের বৃত্তি নিয়ে গণিত ও পরিসংখ্যানের উপর পড়াশুনা করার জন্য ইউনিভার্সিটি অব হাওয়াইতে আসেন। উল্লেখ্য যে তিনিই ছিলেন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম আফ্রিকান ছাত্র।


১৯৬১

বারাক ওবামা সিনিয়র বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন শ্বেতাঙ্গীনি আমেরিকান অ্যান ডানহামের সাথে, যার সঙ্গে কিছুদিন আগেই তার পরিচয় হয় রাশিয়ান ভাষা শিক্ষা ক্লাসে। সেই বছরই আগষ্টের চার তারিখে বারাক ওবামা জুনিয়রের জন্ম হয়।


১৯৬৩

বারাক ওবামা সিনিয়র হাভার্র্ড ইউনিভার্সিটিতে গ্র্যাজুয়েট স্টাডির জন্য স্কলারশিপ পান; মাত্র দুই বছর বয়সের বারাক জুনিয়র ও স্ত্রীকে রেখে তিনি চলে যান বোস্টনে।


১৯৬৪-৬৫

অ্যান ডানহাম ও বারাক ওবামা সিনিয়রের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। পরের বছর বারাক সিনিয়র হাভার্ডে পড়াশুনা শেষ করেন, বিয়ে করেন রুথ নিডেস্যান্ড নাম্নী আর একজন আমেরিকানকে এবং সস্ত্রীক কেনিয়াতে ফিরে যান।


১৯৬৭

অ্যান ডানহাম বিয়ে করেন লোলো সোয়েটোরো নামে একজন ইন্দোনেশিয়ানকে। ছয় বছরের ওবামাকে নিয়ে নতুন দম্পতি চলে যান জাকার্তার এক দরিদ্র এলাকায়।


১৯৬৭

লোলো সোয়েটোরো তার আমেরিকান তেল কোম্পানিতে প্রোমোশন লাভ করেন, পরিবারকে নিয়ে আসেন একটি উন্নত এলাকায়।

১৯৭১

১০ বছর বয়সের ওবামাকে অ্যান পাঠিয়ে দেন হাওয়াইতে তার বাবা-মার (ওবামার নানা-নানী)-র কাছে। বালক ওবামা সেখানকার বিখ্যাত স্কুল পুনাহাউতে স্কলারশিপসহ ভর্তি হন। সেই স্কুলে হাতে গোনা কয়েকজন কালো ছাত্র ছিল,অন্যান্য ছাত্ররা ওবামাকে 'ইন্দোনেশিয়ার কাল ছেলে' বলে ডাকত। মায়ের কাছ থেকে দূরে থাকা ওবামার মনে প্রচন্ড চাপ ফেলে।

১৯৭২

অ্যান ডানহাম ইন্দোনেশিয়ার জীবন ফেলে হাওয়াইতে ফিরে আসেন; আবার পড়াশুনা করেন ইউনিভার্সিটি অব হাওয়াইতে। উল্লেখ্য যে ইন্দোনেশিয়াতে অ্যানের কন্যা মায়ার জন্ম হয়। দুই সন্তানকে নিয়ে অ্যান হুনলুলুতে ছোট একটা বাড়ীতে বসবাস শুরু করেন। এবছরই বারাক ওবামা সিনিয়র হাওয়াইতে আসেন। পিতা পুত্রের সেই সাক্ষাত যে কারনেই হোক সুখকর হয়নি। সেই শেষবারের মত ওবামা তার বাবাকে দেখেন।


১৯৭৯

বারাক ওবামা লস অ্যাঞ্জেলেসের অিন্টাল কলেজে পড়াশুনা শুরু করেন। সফোমোর ইয়ারের শেষে ওবামা চলে যান কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি অব নিউ ইয়র্কে। প্রচুর পড়াশুনা শুরু করেন বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ের উপর।

১৯৮০

অ্যান ডাহাম ও লোলো সোয়েটোবোর বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে।


১৯৮২

২১ বছর বয়সী ওবামা বাবার মৃত্যুসংবাদ পান। একই বছর হার্ভার্ড ল স্কুলে পড়াশুনা শুরু করেন।


১৯৮৮

ওবামা ঠিক করেন নিজের উৎসের সন্ধানে তিনি কেনিয়া যাবেন। প্রথমবারের মত যান অ্যালেগো গ্রামে; দেখা করেন দাদা দাদীসহ পিতৃকলের সবার সাথে। এই সফর ছিল তাঁর জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায়। তিনি উপলদ্ধি করেন কি সংগ্রামের ভেতর দিয়ে তারা বাবা জীবন যাপন করেছেন।

১৯৯০

বারাক ওবামা নির্বাচিত হন হার্ভার্ড ল রিভিউয়ের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট


১৯৯১

বারাক ওবামা হার্ভার্ড ল স্কুল থেকে পাস করেন। লেখা শুরু করেন তার বহুল আলোচিত বই Dreams from my Father


১৯৯২

বারাক ওবামা শিকাগোতে ফিরে আসেন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন আইনজীবি মিশেল রবিসনের সাথে। একই বছর ইউনির্ভাসিটি অব শিকাগোর ল স্কুলে সাংবিধানিক আইন পড়ানো শুরু করেন। ৯২- র নির্বাচনের সময় ইলিনয় প্রোজেক্ট ভোট নামের একটি সংগঠনের পরিচালক নিযুক্ত হন যেখানে তার দায়িত্ব ছিল সংখ্যালঘু ভোটারদেরকে রেজিস্ট্রেশন করান। অত্যন্ত সফলভাবে সে দায়িত্ব পালন করেন- প্রায় এক লক্ষ নতুন ভোটার রেজিস্ট্রেশন করেন যার অধিকাংশই ছিল কৃষ্ণাঙ্গ।

১৯৯৬

বারাক ওবামা ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নমিনেশন পেয়ে ইলিনয়ের স্টেট সিনেটর হিসেবে নিবার্চিত হন।

 

১৯৯৮

ওবমা দম্পতির প্রথম সন্তান মালিয়ার জন্ম। একই বছর বারাক ওবামা ইলিনয়ের স্টেট সিনেটর হিসেবে পুনর্নিবাচিত হন।


২০০১

ওবামার দম্পতির দ্বিতীয় সন্তান নাতাশার জন্ম।


২০০৩

বারাক ওবামা ইলিনয় সিনেটের Health & Human Services Committee-র চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।


২০০৪

বারাক ওবামা ৭০% ভোট পেয়ে ইউ এস সিনেটের সদস্য নির্বাচিত হন। ওবামা ছিলেন আমেরিকার ইতিহাসে পঞ্চম কৃষ্ণাঙ্গ সিনেটর। একই বছর ডেমোক্রেটিক পার্টির ন্যাশনাল কনভেনশনে Keynote speaker হিসেবে বক্তব্য রেখে বিশ্বব্যাপী পরিচিতি অর্জন করেন।  


২০০৫

ওবামা সিনেটর হিসেবে শপথ গ্রহ করেন। রিপাবলিকান সিনেটর টম কোবার্নের সাথে তার প্রথম আইন পাস হয় যা প্রত্যেক আমেরিকানকে অনলাইনে গিয়ে কিভাবে ট্যাক্স ডলার ব্যয় হচ্ছে তা জানার অধিকার দেয়।


২০০৭

ফ্রেব্রুয়ারীর ১০ তারিখে ওবামা ২০০৮ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশগ্রহ করার ইচ্ছার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করেন।


২০০৮

জুনের আট তারিখে হিলারী ক্লিনটনকে হারিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নমিনেশন পান।
এর পরের ঘটনা সবই ইতিহাস। ২০০৮ সালের নভেম্বরের পাঁচ তারিখে আমেরিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে ওবামা ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নেন।

 

উৎস : ইন্টারনেট

 

হিউস্টন, টেক্সাস

ফেব্রুয়ারী ৯, ২০১০

ই-মেইল : reshad124@yahoo.com  

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.