Home | About Us | Porshi Team | Porshi Patrons | Event Announcement | Contact Us
হোমপেজ পুরনো সংখ্যা: সূচীপত্র  সাম্প্রতিক  ||  ৯ম বর্ষ ২য় সংখ্যা জ্যৈষ্ঠ ১৪১৬ •  9th  year  2nd  issue  May-June  2009 পুরনো সংখ্যা
খালেদার বাড়ি এবং বাংলাদেশের রাজনীতি Download PDF version
  সাম্প্রতিক

খালেদার বাড়ি এবং বাংলাদেশের রাজনীতি

শুভ কিবরিয়া

বহু বছর ধরে ক্যান্টনমেন্টে বসবাস করছেন বেগম জিয়াজিয়াউর রহমানের হত্যার পর এই বাড়িতে বসেই উত্তরণ ঘটেছে বেগম জিয়ারগৃহবধূ থেকে বিএনপির রাজনীতি কর্ণধার বনেছেন তিনিএই বাড়িতে বসেই বিএনপির রাজনীতির অন্যতম ত্রাতারূপে আবির্ভূত হয়েছেন বেগম জিয়ার বড় ছেলে তারেক জিয়াওক্যান্টনমেন্টের এই বাড়ি ব্যক্তিগত পারিবারিক ও রাজনৈতিক জীবনের বহু উত্থান-বেগম জিয়ার পতনে আশ্রয়স্থল হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছেসেই বাড়ি থেকেই বেগম জিয়া উচ্ছেদের নোটিশ পাচ্ছেন কেন? উচ্ছেদ ঠেকাতে আদালতের শরণাপন্নই বা হতে হচ্ছে কেন? এই বাড়ি নিয়ে হৈ চৈ বা কেন? এই হৈ চৈ,সঙ্গে জনগণের সম্পৃক্ততাই বা কি? বিদ্যুৎ ও পানির সংকট,বিডিআর বিদ্রোহের সুষ্ঠু তদন্ত, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, জঙ্গিবাদের উত্থান, বাজার দরের উত্থান-পতন- জাতীয় জীবনের এসব নানাবিধ সংকট এবং সমস্যার মধ্যে বেগম জিয়ার এ বাড়ি বিষয়ক জটিলতা কতটুকু বড় জায়গা জুড়ে আছে? এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গেলেই বোঝা যাবে, এই বাড়ি উচ্ছেদ ঘটনা আর বিএনপির রাজনৈতিক সংকট প্রায় সমার্থক

২.

নির্বাচনে ভূমিধ্বস পরাজয় মানতে পারেননি বেগম জিয়াএকে আন্তর্জাতিক এবং আঞ্চলিক রাজনীতির ফল এবং ষড়যন্ত্র হিসেবেই দেখেছেনবিএনপির ২০০১-০৬ শাসনামলে নিজেদের অযোগ্যতা, অদক্ষতা, দুর্নীতি, দুঃশাসন ভুল রাজনীতির যে ফলাফল এই নির্বাচনে দেখা গিয়েছে তা মানতে এবং বিশ্বাস করতে চাননি বেগম জিয়ারাজনীতির ষড়যন্ত্র এবং মাইনাস তত্ত্বে ভরসা করে নিজে ক্যান্টনমেন্টের বাসভবনে থেকে, পুত্রদ্বয়কে মাইনাস করে রাজনীতিতে প্রত্যাবর্তন করতে চেয়েছেন তিনিবেগম জিয়ার আশপাশে বিএনপির যেসব নেতারা ছিলেন তারাও বেগম জিয়াকে তাই বুঝিয়েছেনসুতরাং গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ বিজয় বিএনপির কাছে প্রতিভাত হয়েছে ষড়যন্ত্রের ফল হিসেবেবিএনপির কথিত থিঙ্কট্যাঙ্কের হিসেব মতে ভারত এবং তার মিত্ররা বাংলাদেশে জাতীয়তাবদী রাজনীতি ধ্বংস করতে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আবরণে বিএনপিবিরোধী অবস্থান নিয়েছেতাদের বিশ্বাস এই সম্মিলিত বিরোধিতাই বিএনপির নির্বাচনে ভরাডুবির অন্যতম কারণএই শক্তির কারণেই বিএনপিতে সংস্কারবাদীদের উদ্ভব ঘটেছেবেগম জিয়ার কারাবাস নিশ্চিত হয়েছে, তারেক জিয়াকে বাধ্যতামূলক নির্বাসন মানতে হয়েছে

৩.

নির্বাচনে বিএনপির বিরুদ্ধবাদী শক্তির (দেশ ও বিদেশের) প্রাবল্য ঠেকাতে বিএনপি তাহলে কি ভূমিকা নিয়েছেবিরুদ্ধ শক্তি প্রবল থেকেই যদি বিএনপিকে বারবার আঘাত হানতে থাকে- তার প্রতিরোধে বিএনপি কি ব্যবস্থা নিয়েছে? এ আঘাত এবং প্রতিরোধের খোঁজ নিতে গেলেই বোঝা যাবে বিএনপির শক্তি এবং তার শত্রু-মিত্র নির্ণয়ের প্রকৃত অবস্থা

পৃথিবীব্যাপী রাজনীতির যে ওলটপালট ঘটছে তা বোঝার কোনো প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেনি বিএনপি বিগত দিনগুলোতেবিশেষত ২০০১-২০০৬ এ, তারেক জিয়ার উত্থানপর্বে বিএনপির চোখ ছিল আকাশেরাষ্ট্রীয় ক্ষমতা আর তারেক জিয়ার নেতৃত্ব এই দুই-ই ভরসা ছিল বিএনপিরপৃথিবীজুড়ে ক্ষমতাধর আমেরিকা যে শত্রু-মিত্র পাল্টাচ্ছে,স্বাধীনতা আর সার্বভৌমত্বের লড়াইয়ে ল্যাটিন আমেরিকা থেকে আফগানিস্তানে যে পরিবর্তনের ঝড় আসছে এসব বিষয়ে চোখ বুজে দুর্নীতি আর দুঃশাসনের পাগলা ঘোড়ায় চেপে বিএনপি চলেছে এক অন্যপথে তখন২০০১-২০০৬ শাসনামলে বেগম জিয়ার প্রধানমন্ত্রিত্ব আর তারেক জিয়ার বিকল্প শাসন, অন্য অনেককে যে সুযোগ করে দিচ্ছে, এই প্রশাসনিক দুর্বলতা এবং আনুষ্ঠানিক বিপদের ঘনঘটা দেখার কোনো স্বাভাবিক  চোখ ব্যবহৃত হয়নি বিএনপির রাজনীতিতেক্ষমতার শীর্ষ দুই বিন্দু বেগম জিয়া, তারেক জিয়া যে পথে হেঁটেছেন গোটা বিএনপি নেতৃত্ব তখন সে পথে হেঁটেছে

৪.

বেগম জিয়া বাড়ি থেকে উচ্ছেদ হচ্ছেন বা তাকে উচ্ছেদ করার জন্য নোটিস যাচ্ছে- এই যে রাজনৈতিক ঘটনা তার গোড়াপত্তন হয়েছে ২০০১-২০০৬ শাসনামলেএই পাঁচ বছরে বিএনপি সাংগঠনিকভাবে যারপরনাই দুর্বল হয়েছেজনগণের কাছ থেকে দূরে সরেছে বিএনপিতৃণমূলের ত্যাগী নেতারা দুর্নীতিবাজ ক্ষমতাবানদের ভয়ে দলের আশপাশে ভিড়তে পারেন নাইবেগম জিয়া নিজেও দল থেকে দূরে সরেছেনদলের সিনিয়র নেতারা তারেক জিয়ার কর্মকাণ্ডে সন্তুষ্ট হন নাইভেতরে ভেতরে বিরোধ বেড়েছেদুর্নীতির সঙ্গে প্রায় সবাই নানাভাবে সম্পৃক্ত হয়ে পড়েছে

একটি রাজনৈতিক দলের ভেতরের যে শক্তি, যে গাটছড়া দলকে বিপদের দিনে সংঘবদ্ধ রাখে তা দারুণভাবে দুর্বল হয়েছে ২০০১-২০০৬ বিএনপির শাসনামলেজেলায় জেলায় সাংগঠনিক কমিটিগুলো প্রায় অকার্যকর হয়ে পড়েনেতারা দুর্নীতি এবং দুঃশাসনের সহযোগী হয়ে উঠেনসুতরাং যে বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর সমর্থন বিএনপির প্রাণভোমরা সেই জনগোষ্ঠী থেকে ক্রমশ দূরে সরে  যেতে থাকে বিএনপি, কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্তবিএনপির যেসব রথী মহারথী বড় বড় পদ দখল করে রেখেছিলেন তারা এবং তাদের সাঙ্গপাঙ্গরা জনগণের জন্য দুষ্টক্ষত হয়ে উঠেছিল বিগত জোট সরকারের আমলেবিএনপির ভেতরে ক্ষয়রোগ প্রকট হচ্ছিলক্ষমতা আর দাপট বেগম জিয়া এবং তার পুত্রকে সেই রোগের লক্ষণ বুঝতে দেয়নি

ফলে ১/১১ এবং ২০০৭-২০০৮ তত্ত্বাবধায়ক শাসনামলে অরাজনৈতিক প্রতিপক্ষ থেকে যখন দুই বড় রাজনৈতিক দলে আঘাত এসেছে আওয়ামী লীগ তা সামলাতে পারলেও বিএনপি মুখ থুবড়ে পড়েছেফলাফল দেখা গেছে নির্বাচনেসেই মুখ থুবড়ে পড়া অবস্থা থেকে দলকে টানতে সর্বশক্তি ব্যয় করেছেন বেগম জিয়া একাইদল তার সাংগঠনিক শক্তি নিয়ে বেগম জিয়ার পাশে দাঁড়াতে পারেনিবরং অনেক ক্ষেত্রে দল ভারবাহী যন্ত্রণা হিসেবেই দেখা দিয়েছেবেগম জিয়ার নিজস্ব শক্তিতে ভর করেই ২০০৮-এর নির্বাচনে লড়েছে বিএনপিপ্রতিপক্ষ তাই এখন বিএনপির শেষ আশ্রয়স্থল বেগম জিয়াকে আঘাত হানতে চায়আজকের বাড়ি উচ্ছেদ ঘটনা তারই ধারাবাহিকতার ফসল

৫.

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর জাতীয় জীবনে দুর্ঘটনা হয়ে দেখা দেয় বিডিআর বিদ্রোহ এবং নৃশংসতাগোটা বেসামরিক প্রশাসনের জন্য তা ভয়াল আঘাত হয়ে আসেদুই তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার বেসামরিক সরকারের ভিত কেঁপে ওঠেগণতান্ত্রিক শাসন মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে, না, অগণতান্ত্রিক কোনো শক্তিই হবে রক্ষাকবচ- এই বিবেচনা বড় হয়ে দেখা দেয়জাতীয় এই সংকটময় মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাই দাঁড়িয়ে যান গণতান্ত্রিক শাসন অব্যাহত রাখতেআন্তর্জাতিক মিত্রদের সহায়তায় বড় বিপদের দিনে শেখ হাসিনা অসীম সাহসিকতার পরিচয় দেনপিলখানায় বেসামরিক প্রশাসনের কর্তৃত্বেই বিধি ব্যবস্থাদি গৃহীত হয়পরবর্তীতে সামরিক-বেসামরিক যে হত্যাযজ্ঞ চলে, পুরো সামরিকবাহিনী জুড়ে যে অস্থিরতা তৈরি হয়- আপাতত তা একাই সামলে ওঠেন শেখ হাসিনাশেখ হাসিনার অনেক ভুলত্রুটি সত্ত্বেও এই দৃঢ়তা বেসামরিক শাসন ব্যবস্থাকে জয়ী করেগণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা রক্ষায় এ ক্ষেত্রে অনেক বিতর্ক সত্ত্বেও শেখ হাসিনা দৃঢ় ভূমিকা রাখেনসেনাবাহিনীপ্রধান মইন উ আহমেদ গণতান্ত্রিক সরকারের সিদ্ধান্তে আস্থা জ্ঞাপন করে অত্যন্ত বিজ্ঞচিত অবস্থান নেনএকটা বড় রক্তক্ষয়, সংঘর্ষ কিংবা অত্যন্ত জটিল রাষ্ট্রীয় অবস্থা থেকে মুক্ত হয় দেশ

ঠিক এখানেই ভুল করে বসেন বেগম জিয়াহয়ত নিজেই কিংবা তার পরামর্শকদের প্ররোচনায় বেগম জিয়া ক্যান্টনমেটের উত্তেজনাকে পুঁজি করে রাজনীতি করার চেষ্টা করেনসংকটকালে বেগম জিয়ার এই নেতিবাচক ভূমিকা রাজনৈতিক বিবেচনায় প্রজ্ঞা এবং দূরদর্শিতার সংকট বলেই প্রতিভাত হয়সদ্য নির্বাচিত সরকার এবং তার মিত্রদের ক্ষমতা সম্পর্কে ভুল বার্তা পান বেগম জিয়াএসব ভুল তথ্য আর প্ররোচনা বেগম জিয়াকে যে ভূমিকায় আনে- তাতে আরও বড় শত্রুর মুখে পড়েন তিনিএখন ক্যান্টনমেন্ট থেকে তার উচ্ছেদের চেষ্টা সেই ঘটনার ফলাফলবিডিআর সংকট থেকে গণতান্ত্রিক সরকার যদি টিকে যায় তবে বেগম জিয়ার ক্যান্টনমেন্টের বাড়ি থেকে উচ্ছেদ অবশ্যম্ভাবীকেননা আঞ্চলিক, আন্তর্জাতিক রাজনীতির কলকাঠি যারা নাড়েন, যারা সরকার চালাচ্ছেন, সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের নেতৃত্বে যারা আছেন তারা কেউই এখন বেগম জিয়াকে ক্যান্টনমেন্টে বসিয়ে রাজনীতি করতে দিতে রাজি ননশক্তির উৎস হিসেবে প্রতিভাত এই আবাসস্থান থেকে বেগম জিয়ার উৎখাত এখন তাই সময়ের ব্যাপার

৬.

বিএনপির রাজনীতিতে পুরনো মুখগুলো বারবার সামনে এলে জনগণ তাতে উল্লসিত হবে এই ভাবনা এখন যারা ভাবছেন তারা বোকার স্বর্গে বসে আছেন  খোন্দকার দেলোয়ার, জমিরউদ্দিন সরকারের নেতিবাচক ভাবমূর্তি দিনকে দিন আরও উন্মোচিত হবেমির্জা আব্বাস, নাজমুল হুদা, পিন্টু, সাদেক হোসেন খোকা, খন্দকার মোশাররফ, সাকাচৌ- যেসব নেতৃত্ব এখন বিএনপির হয়ে টিভি ক্যামেরার সামনে আসছেন এই মুখ যত ভাসবে বিএনপি ততই দুর্দিনের সামনে পড়বেঅন্যদিকে বিএনপির এসব দুর্যোগকালে আবার ত্রাতা হয়ে আসছেন বহু অঘটনের নেপথ্য নায়ক মওদুদ আহমদমওদুদ আহমদ যখনই কারো ত্রাতা হয়েছেন তার বিপদ ঘনীভূত হয়েছেই কেবলএরশাদ এবং বেগম জিয়া তার ফল পেয়েছেন অতীতেএখন আবার সেই মওদুদ বটিকা বেগম জিয়া সেবন করতে যাচ্ছেনমওদুদের এই নব্য উত্থান অনেক প্রশ্নের উদ্রেক করেবিএনপিকে দুর্বল করতেই ধারাবাহিক পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই কি মওদুদ ইন করছেন? বেগম জিয়া কি স্বাচ্ছন্দেই মওদুদকে বেছে নিলেন- নাকি আবার আন্তর্জাতিক রাজনীতির ঘনঘটায় তাকে কাছে নিতে বাধ্য হচ্ছেন, সেটিও এক প্রশ্ন বটে

৭.

বিএনপি এখন তার রাজনৈতিক ইতিহাসের এক সংকটকালীন সময়ে উপস্থিতপ্রথমত, সরকার এবং আওয়ামী লীগ ক্রমাগত আঘাত হানবে বিএনপিকেযুদ্ধাপরাধীদের বিচার ইস্যুতে বিএনপি কি ভূমিকা নেবে সেটাও একটা বড় কৌশলগত প্রশ্নজামায়াতকে ছাড়া এবং কাছে রাখা দুটোই বিপজ্জনক বিএনপির জন্য অন্তত এই ইস্যুতেজঙ্গিবাদ প্রশ্নে বিএনপির বর্তমান অবস্থান অব্যাহত থাকলে- আঞ্চলিক আন্তর্জাতিক রাজনীতির বর্তমান যে ঘরানা তার প্রতিপক্ষে অবস্থান নিতে হবে বেগম জিয়াকেএই আঘাত তিনি কি কৌশলে রুখবেন সেটাও দেখার বিষয়দলের মধ্যে নানা দ্বন্দ্ব-সংঘাত-সন্দেহ-দ্বেষ-বিরোধ সুস্পষ্টএগুলো বেগম জিয়া কাটাবেন কি দিয়ে! বার্ধক্যপীড়িত প্রায় অকার্যকর বিএনপির বর্তমান সিনিয়র নেতাদের দ্বারা অবরুদ্ধ, কিছুটা বিচ্ছিন্ন এবং একা হয়ে পড়া বেগম জিয়ার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ তার দলকে নতুন নেতৃত্বে সজীব করে গতিশীল করাঅতীতের পুরনো মুখ দুর্নীতি, মস্তানি, দখলদারিত্ব যাদের অবয়বে সুস্পষ্ট, নেতৃত্ব থেকে তাদের অব্যাহতি দিয়ে নতুন নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠা করাও তার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ

নচেৎ বাড়ি বিতর্কের মতো আরও অনেক বিপদ ও ঘটনা অপেক্ষমা বেগম জিয়ার জন্যক্যান্টনমেন্টের বাসভবন বেগম জিয়াকে সে বিপদ থেকে সরাতে পারবে নাযা পারে তার নাম একটি সুসংগঠিত, সুনেতৃত্বের জনগণের বিএনপিসেই রকম বিএনপি শুধু বেগম জিয়া বা তার পরিবারের জন্যই নয়- দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্যও জরুরি

ঢাকা।

 

মন্তব্য:
এ সপ্তাহের জরীপ

প্রেসিডেন্ট ওবামা ঠিকমত দেশ চালা্চ্ছেন।

 
Code of Conduct | Advertisement Policy | Press Release | Hard Copy Archive
© Copyright 2001 Porshi. All rights reserved.